উইকিপিডিয়া:প্রস্তাবিত নির্বাচিত নিবন্ধ

উইকিপিডিয়ার নির্বাচিত নিবন্ধ বাছাই, ও যোগ করবার প্রস্তাবনা এখানে যোগ করুন। নতুন প্রস্তাবনা সবার উপরে যোগ করুন। তবে কোন নিবন্ধকে নির্বাচিত নিবন্ধ করতে প্রস্তাব করার আগে তা অবশ্যই ভাল নিবন্ধ মূল্যায়নে উত্তীর্ণ হতে হবে। আপনার নিবন্ধটি যদি এখনও তেমন কোন মূল্যায়নে অংশ নিয়ে না থাকে তাহলে প্রস্তাবিত ভাল নিবন্ধ এটি যোগ করে এর মূল্যায়নের জন্য অপেক্ষা করুন।


বর্তমান প্রস্তাবনাসমূহ

ভারত

প্রস্তাবিত নিবন্ধে কোনো লাল লিঙ্ক নেই। তথ্যসূত্রগুলি যাচাই করা হয়েছে। বানান ও পরিভাষা-সংক্রান্ত ভুলগুলি সংশোধন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, যে নিবন্ধ থেকে নিবন্ধটি অনূদিত হয়েছে, সেই মূল ইংরেজি নিবন্ধটি ইংরেজি উইকিপিডিয়াতে নির্বাচিত নিবন্ধ। এটিকে নির্বাচিত নিবন্ধ করার প্রস্তাব রাখছি। প্রস্তাবক: — অর্ণব দত্ত (talk) ১৫:৩৯, ২৮ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)

সমর্থন। — তানভির আলাপ অবদান ০৭:৩৮, ২৯ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
সমর্থন--সপ্তর্ষি(আলাপ | অবদান) ১৭:৫৭, ২৯ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
সমর্থন -- সময়াভাবে চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে পারলাম না, তবে এক নজরে যা দেখলাম, সব ঠিক আছে বলেই মনে হচ্ছে। আরেকবার বানান ও ভাষারীতি যাচাই করে নিলেই এটাকে নির্বাচিত নিবন্ধ করা যাবে। --রাগিব (আলাপ | অবদান) ১৩:৫৪, ৩০ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
মন্তব্য - আমার মনে হয় সব কাজ হয়ে গেছে। আমি আগামী ১ থেকে ২ দিন উইকিতে অতো আসতে পারছি না ... এর মধ্যেই যদি মতৈক্যে পৌছানো যায় (মানে আর কারো বিস্তারিত আপত্তি না থাকে), তবে ভুক্তিটিকে নির্বাচিত নিবন্ধে উন্নীত করার জন্য অন্যান্য প্রশাসকদের অনুরোধ রাখছি। (অবশ্য, যদি কোনো সমস্যা আরো না বের হয়, তবেই)। --রাগিব (আলাপ | অবদান) ০৯:২২, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
মন্তব্যের প্রেক্ষিতে - আমার ধারণা, সব সমস্যা নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। আমি আর তানভির বিগত কয়েক দিন ধরে সমস্যাগুলির সমাধান করেছি। এবং মনে হয়, এখন আর কারো বিস্তারিত আপত্তি নেই। --অর্ণব দত্ত (talk) ১১:১৩, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
  • মূল লেখক অর্ণব বাবু বারণ করায় বর্তমান মন্তব্যকারী সম্পাদনা থেকে বিরত। তবে রাগিবের উপর্যুক্ত মন্তব্যসূত্রে পর্যালোচনা করার সুযোগ নেয়া যেতে পারে। (ক) যেমন ধরা যাক ভূমিকাংশের একটি বাক্য: "ভারতীয় অর্থব্যবস্থা বাজারি বিনিময় হারের বিচারে বিশ্বে দ্বাদশ ও ক্রয়ক্ষমতা সমতার বিচারে বিশ্বে চতুর্থ বৃহত্তম"। এখানে, বাক্যের প্রথমাংশে পরিভাষাগত উন্নয়নের সুযোগ আছে। প্রকৃতপক্ষে তা করা না-হলে বাক্যাংশটি সত্যিকার অর্থে অর্থবহ হবে না। অনুমিত হয়, আক্ষরিক অনুবাদের কারণেই এই ত্রুটি থেকে গেছে। (খ) ভূমিকাংশের আরেকটি বাক্যাংশ: "১৯৯১ সালে ভারত সরকার গৃহীত আর্থিক সংস্কার নীতির ফলশ্রুতিতে আজ (আর্থিক বৃদ্ধিহারের বিচারে) ভারত বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনৈতিক ব্যবস্থাগুলির মধ্যে দ্বিতীয় ... । এই বাক্যাংশের বন্ধনী বর্তমান মন্তব্যকারী কর্তৃক সংযোজিত। এখানেও পরিভাষাগত বিভ্রাট আছে যা সংশোধন করা উচিৎ। তদুপরি "অর্থনৈতিক ব্যবস্থা" শব্দটিও প্রতিস্থাপনীয়। (গ) নিকটবর্তী আরেকটি বাক্যের কথা বলি: "সাংস্কৃতিক দৃষ্টিভঙ্গিতে ভারত একটি বহুধর্মীয়, বহুভাষিক, ও বহুজাতিক রাষ্ট্র"। ভারতের উল্লিখিত ৩টি বৈশিষ্ট্য বর্ণনার জন্য "সাংস্কৃতিক দৃষ্টিভঙ্গির" কেন প্রয়োজন হচ্ছে তা সহসা বোধগম্য নয়। তবে হ্যাঁ, এটি চুলচেরা বিচারের বিষয় যা সাধারণ বিবেচনায় আপাতত: উপেক্ষা করা যেতে পারে। একইভাবে "অতিমাত্রায় দারিদ্র্য" বোধগম্য হলেও এর চেয়ে সঠিকতর শব্দ, বিশেষ করে একটি বিশেষণমূলক শব্দ ব্যবহার করা শ্রেয়। "অতিমাত্রায়" আর যাই হোক ব্যাকরণগতভাবে বিশেষণমূলক পদ নয়। (ঘ) বুৎপত্তি অংশে বলা হয়েছে: "ভারত নামটির উৎপত্তি হিন্দু পৌরাণিক রাজা ভরতের নামানুসারে"। এখানে অবশ্যই বলা উচিৎ "হিন্দু পৌরাণিক চন্দ্রবংশীয় রাজা ভরতের নামানুসারে" কারণ ভারতের নাম সূর্যবংশীয় রাজা ভরতের নামানুসারে হয় নি। - প্রথমাংশ পড়ে এই কয়েকটি প্রশ্ন জেগে উঠলো। হয়তো এধরনের মন্তব্য করার সুযোগ নিবন্ধের বাকী অংশে আরো রয়েছে। ভাষা-পরিভাষাগত উন্নয়ন, সংহতি পরীক্ষা, স্পষ্টীকরণ প্রভৃতি সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। ধারণা হয়েছে অতটা সময় নেই। -- Faizul Latif Chowdhury (talk) ১৪:৩৯, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
(ক) ও (খ) পরিভাষাগত বিভ্রাট নেই, সেটা আমি অন্তত দুটি পরিভাষা সংকলন (বাংলা আকাদেমির পরিভাষা সংকলন ও রাজ্য পুস্তক পর্ষদের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের পরিভাষা দেখে মিলিয়ে নিয়েছি। ভূমিকায় বিস্তারিত ব্যাখ্যার প্রয়োজন হয় না। এবং এই নিবন্ধের ভূমিকাংশ যথেষ্টই বোধগম্য বলে মনে হয়েছে। (গ) সাংস্কৃতিক দৃষ্টিভঙ্গিতেই ভারত "বহুধর্মীয়, বহুভাষিক, ও বহুজাতিক রাষ্ট্র"। অন্য দৃষ্টিভঙ্গি থেকে একথা বলা যায় না, তা নয়; তবে সাংস্কৃতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই একথা অধিকতর স্পষ্ট হয়। (ঘ) ব্যাকরণের চুলচেরা বিচারের প্রয়োজন নেই। শব্দটি প্রচলিত এবং বোধগম্য। (ঙ) সূর্যবংশীয় ভরত রাজা হননি, তিনি রাজপ্রতিনিধি ছিলেন মাত্র। তাই রাজা ভরত বোঝাতে চন্দ্রবংশীয় ভরতকেই বোঝায়। সেই কারণে যখন রাজা কথাটি ব্যবহৃত হয়েছে, তখন তিনি যে চন্দ্রবংশীয় রাজা সেটা আলাদা করে না বললেও চলে। পরিশেষে: "ভাষা-পরিভাষাগত উন্নয়ন, সংহতি পরীক্ষা, স্পষ্টীকরণ"-এর কাজ গত জুন মাস চলেছে। তাই আমার মনে হয়, এখন নিবন্ধটি যথেষ্টই স্পষ্ট ও বোধগম্য। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৫:৩৬, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
মন্তব্য - হয়তো বাক্যগুলো ভুল নয়, কিন্তু একে আরও সাবলিল, সহজ এবং সুন্দর করা সম্ভব। ফয়জুল ভাই যে পরামর্শগুলো প্রদান করেছেন তা মটেই ভারত নিবন্ধকে নির্বাচিত নিবন্ধ করা থেকে বিরত করার জন্য করেন নি। তিনি যা করেছেন তা নিবন্ধকে আরও সাবলিল এবং সহজ করার উদ্দেশ্যেই করেছেন। এগুলো নেতিবাচক না ভেবে ইতিবাচক বলে ভাবা উচিত। আর ফয়জুল ভাইয়ের পরামর্শগুলো মটেও অহেতুক বা অযুক্তিকর নয়। নিবন্ধের ভাষাকে আরও সহজ এবং বোধগম্য করতেই এ পরিবর্তন গুলো প্রয়োজন। ভূমিকায় বিস্তারিত ব্যাখ্যার প্রয়োজন হয় না। এর মানে এই নয় বাক্যে জড়তা দূর করা যাবে না বা বাক্যটি খটমটে হতে হবে। নিবন্ধের ভূমিকাংশ যথেষ্টই বোধগম্য বলে মনে হয়েছে। এটি নিবন্ধ দাতা হিসেবে মনে হতে পারে, কিন্তু পাঠক হিসেবে অন্য ব্যবহারকারীর তা মনে হয়নি। অন্যের মতামতের গুরুত্ব দেওয়ার চেষ্টা করা উচিত। ব্যাকরণের চুলচেরা বিচারের প্রয়োজন নেই। কথাটি ঠিক নয়। এর প্রয়োজন অবশ্যই আছে। অতিমাত্রা শব্দটি দারিদ্র শব্দটির সাথে ব্যবহার করা যায় কিনা তা অবশ্যই ব্যাকরণগত দিক বিবেচনা করতে হবে। ব্যাকরণগত ভুল দেখিয়ে দেওয়ার পরেও একে এড়িয়ে যাওয়া মোটেও ঠিক হবে না। তাতে নিবন্ধের মানের সাথে আপোষ করা মানে আমাদের নিজেকে নিজের পিঠ দেখানোর মতই। কেন মনে করছেন হচ্ছে, যে পাঠক ভারত নিবন্ধটি পড়ার আগেই সূর্যবংশীয় রাজা ভরত এবং হিন্দু পুরাণের চন্দ্রবংশীয় রাজা ভরত সম্পর্কে আগে সম্যক জ্ঞান সম্পন্ন হবেন। তথ্যের সম্পূর্ণতা প্রদানে বাঁধা কোথায়? জুন মাসে এর সার্বিক উন্নয়ন হয়েছে বলে তা যথেষ্ট স্পষ্ট এবং বোধগম্য হয়ে গেল এরও যৌক্তিক কোনো কারণ আমি বুঝে পেলাম না। রিভিউ এর কারণে যদি নিবন্ধের মান আরও বাড়ে তাহলে তা করতে দেওয়ার সুযোগ আমাদের দিতে হবে। রিভিউ এবং যৌক্তিক সম্পাদনাকে বাঁধা দেওয়াটা উইকিপিডিয়ার নীতিবিরোধী কাজ। অভিজ্ঞ অবদানকারীর এ ধরনের কাজ খুবই হতাশাজনক। আপনার কি মনে হচ্ছে তার চেয়ে পাঠকের কি মনে হচ্ছে তা ই এখানে বেশী প্রাধান্য পাওয়া উচিত বলে আমি মনে করি। আজকে একে নির্বাচিত নিবন্ধ হিসেবে উত্তীর্ণ করলেও, আগামীকালই যখন এ নিবন্ধটির বাক্যগুলো পরিবর্তন হওয়া শুরু করবে, স্ট্যাবলিটির অযুহাতে এ নিবন্ধটি আগামীকালই এর নির্বাচিত নিবন্ধ স্ট্যাটাস বাতিল হতে পারে। আমার মনে হয় না এটা কারও কাম্য। সর্বশেষে পরামর্শ নিবন্ধটি বেশ ভাল তবে এখনও এর সাবলিল এবং যথাযথ মানে উত্তীর্ণ করতে বেশ সম্পাদনার প্রয়োজন রয়েছে বলেই মনে হয়, ফলে সময় নিন। ফয়জুল ভাইকে এর মানোন্নয়নে সম্পাদনার সুযোগ দেওয়া উচিত। ওনাকে আহ্বান জানানো উচিত যথাসম্ভর জলদি একে রিভিউ করে দিতে। যাতে পরিবর্তনগুলো সম্পূর্ণ হলেই জলদি একে নির্বাচিত নিবন্ধ করা সম্ভব হয়। একটু দেরী হবে সময় লাগবে এই আর কি।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১৬:৩৮, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
ফয়জুল সাহেবের মতামতকে আমি গুরুত্ব দিচ্ছি না তা নয়। এমন নয়, যে আমি এর রিভিউ বা উন্নতিসাধনে বাধা দিয়েছি। নিবন্ধটি যেহেতু ভারত সংক্রান্ত সেহেতু ভারতের ভাষারীতি ও পরিভাষাগুলিকে আমাদের এখানে গুরুত্ব দেওয়া দরকার বলেই আমার মনে হয়েছে। উনি স্পষ্টতই তা করছেন না। সেজন্যই রিভিউ বা উন্নতির আগে ওঁকে সাবধানী হতে বলেছি। রিভিউ করতেও বারণ নেই। বরং অর্থনীতি বিষয়ে ওঁর আগের বক্তব্যগুলি যথেষ্ট মনোযোগ সহকারে বিবেচিত হয়েছে। না জুনে কাজ শেষ হয়েছে বলে দাবি করিনি। বরং দাবি করেছি জুন থেকেই কাজ চলছে। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৬:৫৪, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
রাজা ভরতের নামের ব্যাপারে একটি নেহাত অপ্রাসঙ্গিক তথ্য নিয়ে কেন বেশি মাথা ঘামানো হচ্ছে তাও আমার বোধগম্য নয়। এখানে চন্দ্রবংশ/সূর্যবংশ প্রসঙ্গ নেহাত অপ্রাসঙ্গিকই। কারণ চন্দ্রবংশ ছাড়া যেহেতু অন্য কোনো বংশে ভরত নামের রাজা ছিলেন না, তাই ফয়জুল সাহেবের আশঙ্কা অনুযায়ী দ্ব্যর্থতার কোনো প্রশ্নই এখানে উঠছে না। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৭:০২, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
ভারতের মূল নিবন্ধে চন্দ্রবংশ/সূর্যবংশ প্রসঙ্গ খানিকটা অপ্রাসঙ্গিক (ভারতের নামের ব্যুৎপত্তি নিবন্ধে তা হয়তো প্রয়োজন)। তবে যাঁরা ভরত কে তা নাও জানতে পারেন তাঁরা এই ভরত-কে রামের ভাই ভরত বলে যাতে না মনে করেন তার জন্য ভরতের উপর একটি নিবন্ধ লিখে তার লিঙ্ক দিয়ে দিতে পারলে মন্দ হয় না। ২৬শে জানুয়ারীর মধ্যে টার্গেট রাখা ছিল। কাজেই অনেক সময় আছে। তাড়ার আবশ্যক নেই। নির্বাচিত নিবন্ধ স্ট্যাটাস হওয়া বা বাতিল হওয়া নিয়ে কারো মরণ বাঁচন লড়াই চলছে না। বাংলাদেশ নিবন্ধ নির্বাচিত হবার এবং প্রথম পাতায় আসার পরে তাতেও অনেক পরিবর্তন হয়েছে। ভারত নিবন্ধে এখনো edit war হয় নি। মতানৈক্য হতেই পারে এবং ভালই আলোচনা চলছে। বেলায়েত ভাইকে অনুরোধ "হতাশাজনক" ইত্যাদি strong ও দুঃখদায়ক বিশেষণ কম ব্যবহার করতে। --সপ্তর্ষি(আলাপ | অবদান) ১৭:২৮, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
প্রথম পাতায় বাংলাদেশ নিবন্ধ দেখা যেমন বাংলাদেশের সম্পাদকদের কাছে আবেগপ্রবণ ব্যাপার (বাংলাদেশ অনেক দিনই প্রথম পাতায় ছিল), প্রথম পাতায় ভারত নিবন্ধ দেখাও ভারতীয় পাঠক ও সম্পাদকদের কাছে অনুপ্রেরণাদায়ক। ১লা জানুয়ারির মধ্যে যদি major issues-এ মতৈক্য হয়ে যায়, তাহলে একে নির্বাচিত নিবন্ধ করে দিয়ে minor edits পরেও করা যেতে পারে।---সপ্তর্ষি(আলাপ | অবদান) ১৭:৪১, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
রাগিব ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলে ২৬ তারিখের বদলে ১ জানুয়ারি টার্গেট ধরা হয়েছে। তাছাড়া সম্পাদনা যে কোনো সময়ে চলতেই পারে। আমি কাউকে বারণ করিনি, বাধাও দিই নি। বরং আমার সঙ্গে যাঁরা এই নিবন্ধে কাজ করেছেন, প্রত্যেকের প্রত্যেকটি বক্তব্য শুনেছি, পরামর্শ মেনেছি। কিন্তু দুঃখের বিষয় ফয়জুল সাহেবের কিছু (আবারও বলছি, কিছু; সব নয়) পরিবর্তন ও পরামর্শ আমার চোখে অত্যন্ত বিসদৃশ ও বিভ্রান্তিকর ঠেকেছে বলে, ওঁকে কিছু সাবধানতা অবলম্বনের পরামর্শ দিতে বাধ্য হয়েছি। বেলায়েত ভাইয়ের মনে হয়েছে আমি সেগুলিকে নেতিবাচক মনে করে করেছি - এটাই আমার কাছে দুঃখের কথা। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৭:৪৭, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
ভরতকে নিয়ে নিবন্ধপৃষ্ঠা অবিলম্বে তৈরি করে দেবো। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৭:৫৩, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)

প্রয়োজনীয় সম্পাদনায় এখানে মোটেও বাধা দেওয়া হচ্ছে না। বরং বারবার উৎসাহিত করা হচ্ছে। ফয়জুলভাই ইতিপূর্বে অর্থনীতি অংশে তথ্য হালনাগাদসহ কিছু পরামর্শ দিয়েছিলেন, যা মানা হয়েছে। তিনি কিছু সম্পাদনাও করেছেন। আসলে আমার মনে হয়, এখানে এই বিভ্রান্তির সৃষ্টির কারণ দুই বাংলার বাংলা ভাষা সংক্রান্ত প্রচলন ও নিয়মের কিছু বিভেদ। এই ব্যাপারটা আমার মতে সহজেই এড়ানো যায় নিবন্ধের শুরুর দিকে এটি নোটিশ দিয়ে। ইংরেজি উইকিতে দেখেছি কিছু নিবন্ধের ওপর লেখা থাকে যে, এই নিবন্ধে ব্রিটিশ বা অ্যামেরিকান ইংরেজি অনুসৃত হয়েছে। তেমনি আমরা লিখে দিতে এই নিবন্ধে পশ্চিম বাংলা আকাদেমির ভাষারীতি ও পরিভাষা ব্যবহৃত হয়েছে। তাহলে আমরা অনেক ঝামেলা থেকেই মুক্ত পাবো। যেমন, মুম্বই নিবন্ধে কেউ ভুল মনে করে মুম্বাইয়ে সংশোধন করতে চিন্তা করবে। একই কথা আগাস্ট/অগস্ট-এর ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। — তানভির আলাপ অবদান ১৬:৪৮, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)

এখানে যে বিভ্রান্তির কথা বলা হয়েছে তা কোনো ভাবেই এই নিবন্ধের সাথে সামঞ্জস্য নয়। এ নিবন্ধে তেমন কোনো সমস্যাই হয়নি। এপার বাংলা এবং ওপার বাংলায় আমাদের শুধু কিছু শব্দের বানানগত পার্থক্য ছাড়া আর কোনো পার্থক্য নাই এবং এই পার্থক্য আমেরিকান এবং ব্রিটিশ ইংরেজীর মত এতো কট্টর বা একে অন্যকে সহ্য করতে পারেন না, এমনটি নয়। এপার ওপারের বাংলা বানানের অনেক গুলোই দু বাংলাতেই সিদ্ধ। যা ইংরেজীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। তাই দুই বাংলার ভাষাকে অহেতুক ইংরেজীর সাথে তুলনা করে বিভেদ না বাড়ানোর জন্যই অনুরোধ করবো। এতে আমাদের ঐক্যতার বন্ধন আলগা হবে বৈকি শক্ত হবে না। এ নিবন্ধে ভাষার সাবলিলতা বৃদ্ধি এবং ব্যাকরণগত কিছু সমস্যা ছিল যা দুই বাংলার ভাষার ক্ষেত্রেই একই। এখানে ব্যাকরণগত ভুল মানে দুই বাংলাতেই তা ভুল। এমনটা নয় যে বাংলাদেশে যা ব্যাকরণগত ভুল তা পশ্চিমবঙ্গে সঠিক। আর একজন অভিজ্ঞ উইকিপিডিয়ান যখন বার বার অনুরোধ করার পরেও নীতিবিরোধী কিছু করেন এবং যখন এর ফলে কোনো ব্যবহারকারী গঠনমূলক সম্পাদনা করতে নিরুৎসাহিত করা হয় (যা উইকিপিডিয়ার জন্য বুমেরাং এবং অগ্রগতিতে বিরাট বাঁধা তৈরি করে), তখন একে হতাশাজনক না বলে আর কি বলার আর করার আছে তা পরামর্শ দেওয়ার অনুরোধ করছি। চাইলেই আমরা যে কাউকে উইকিপিডিয়ায় তার সতস্ফুর্ত অবদানকে নিরুৎসাহিত করতে পারি। কিন্তু চাইলেই আমরা কাউকে উইকিপিডিয়ায় নিয়মিতভাবে অবদান রাখতে উৎসাহিত করতে পারি না। তাই একজন ব্যবহারকারীর উইকিপিডিয়ায় অবদান, উইকিপিডিয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১৮:০২, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
আপনি বলছেন সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়, কিন্তু ইতিমধ্যেই ভারত নিবন্ধে তা হয়েছে। যেমন: জনগণনা vs. আদমশুমারী। তাছাড়া কিছু কিছু ক্ষেত্রে বেশ বড় পার্থক্যও আছে, যা বাংলাদেশে রীতিমত ভুল। আপনি-আমি ভালো জানবো, কারণ আমরা বাংলাদেশে পড়েছি। ধরুন পরীক্ষার খাতায় যদি অগস্ট বা মুম্বই লিখতাম টিচার সোজা নাম্বার কেটে রাখতো, তাই না? এখন একজন বাংলাদেশি পাঠক এসে যদি মুম্বই দেখেন, তো খুবই স্বাভাবিক তা সঠিক করতে প্রচেষ্ট হবার যথেষ্ট কারণ আছে। তাই সমাধানও খুব সোজা। আমরা একটা প্রজেক্ট পেইজ করে ব্যাপারটা ব্যাখ্যা করি। নোটিশটা নিবন্ধের পাশে ঝুলিয়ে দেই। সবাই ঠিক। আর ব্যাপারটা আপনি বিভেদ হিসেবে নিচ্ছেন, আমি বরং সেটাকে সম্মানজনক ও বিনয়ী সহাবস্থান হিসেবে দেখতে পছন্দ করি। ব্যাপারটা প্রশাসকদের আলোচনাসভায় নিয়ে যাচ্ছি আজই। — তানভির আলাপ অবদান ১৮:১৪, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
এই প্রস্তাবটি তানভিরকে প্রশাসকদের আলোচনাসভায় উত্থাপন করতে অনুরোধ করব। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৭:৩১, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)

ভাষারীতি নিয়ে তানভির ও অর্ণবের সঙ্গে আমি একমত।--~~ — Dr.saptarshi (আলাপঅবদান) এই স্বাক্ষরহীন মন্তব্যটি যোগ করেছেন।

তবুও প্রশাসকদের আলোচনাসভায় প্রসঙ্গটা তোলা হোক। আমাদের মত বিনিময়ের সুযোগ থাকবে। ভুল বোঝাবুঝি হবে না। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৭:৫৩, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
নিবন্ধের ব্যাপারে পরামর্শ হল, আরও ২ দিন সময় নেওয়া। ফয়জুল ভাই সহ সকলকে তাদের রিভিউ, সম্পাদনা এবং পরামর্শগুলো নিবন্ধে দেওয়ার সুযোগ রাখা। এবং দ্বিতীয় দিন যথাযথ সম্পদনা এবং পরিবর্তন করা হলে তা নির্বাচিত নিবন্ধের বিবেচনার জন্য তোলা। এর পরে অন্তত কিছু দিন (১ মাস) কাউকে নিবন্ধে সরাসরি সম্পাদনা না করতে দেওয়া (ফ্রিজ করা)। তবে আলাপের পাতায় এ ব্যাপারে মতামত ও পরামর্শের সুযোগ থাকবে। এর মধ্যে এ নিবন্ধকে নির্বাচিত করা।--বেলায়েত (আলাপ | অবদান) ১৮:২০, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
বেলায়েত ভাই, আমি আপনাকে স্পষ্ট জানাতে চাই, আমি কাউকে গঠনমূলক সম্পাদনা করতে বাধা দিইনি। ফয়জুল সাহেব সম্ভবত পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমির ভাষারীতি ও পরিভাষা সম্পর্কে অবহিত নন। তাই যে নিবন্ধে আকাদেমির ভাষারীতি ও পরিভাষাই মূলত ব্যবহৃত হয়েছে, সেই নিবন্ধ সম্পাদনার আগে ওঁকে এই দুই বিষয় সম্পর্কে অবহিত হওয়ার পরামর্শ দিয়েছি। স্পষ্টতই উনি এইগুলিকে লঙ্ঘণ করছিলেন (যেমন: বৃদ্ধির স্থলে প্রবৃদ্ধি, জনপরিসংখ্যানের স্থলে জনমিতিক পরিসংখ্যান ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি)। একই ভাবে বলা যায়, “অতিমাত্রায়” শব্দটিও দারিদ্র্যের বিশেষণ হিসেবে বহুল প্রচার ও স্বীকৃতিলাভ করেছে। এটিকে ভুল বলা তাই সমীচীন মনে করিনি। আবার উনি অপ্রয়োজনীয় সম্পাদনা করে সঠিক বাক্যে পরিভাষাগত গলদও উপস্থিত করছিলেন। আজই সন্ধ্যায় একটি সম্পর্কে তাঁকে অবহিত করেছি; উইকিপিডিয়ার স্বার্থে ও উইকিপিডিয়ার নিয়ম মেনেই। সময় নিতে আপত্তি নেই। তবে সময় যত খুশি নেওয়া যায়। কিন্তু আমি নীতিবিরোধী কাজ করেছি এমন গুরুতর অভিযোগ আমার কাছে অত্যন্তই অসম্মানজনক। --অর্ণব দত্ত (talk) ১৮:৪৩, ৩১ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)
  • বর্তমান মন্তব্যকারী দু-একটি বিষয় পরিষ্কার করতে আগ্রহী।

(ক) আক্ষরিক অনুবাদের ক্ষেত্রে ভাষা সাবলীলতা হারায়, জড়তা এসে যায় এবং অর্থনির্মলতা হ্রাস পায়। "ভারত" নিবন্ধটির কোথাও কোথাও এ ধরনের সমস্যা আছে। সহজেই এ সমস্যা দূর করা যায়। এ সমস্যা দূর করা উচিৎ কেননা পাঠকের স্বার্থেই উইকিপিয়িডিয়া, এবং পাঠক যাতে সহজে বুঝতে পারেন সে বিষয়ে আমাদের সতর্কতা অবলম্বন করা উচিৎ। যদিও টেকনিক্যাল বিষয়ে তা সর্বদা সম্ভবপর হয়ে ওঠে না।

(খ) আলোচনা যেভাবে অগ্রসর হয়েছে তাতে মনে হয় সমস্যা মূলত: পরিভাষা বা বানানরীতি সংক্রান্ত। ঘটনা তো তা নয়। "আদমশুমারীর" পরিবর্তে "জনগণনা" নিয়ে তো কোন গোল বাধেনি। "জনপরিসংখ্যান"-এর পরিবর্তে লেখা হয়েছিল "জনমিতি", ডেমোগ্রাফির বাংলা হিসাবে (জনতত্ব লিখলে ভুল হতো)। অর্ণব বাবু অনুরোধ করায় অবিলম্বে "জনপরিসংখ্যান" পুনর্বহাল করা হয়েছে। তিনি অনুরোধ করায় অধিকতর সম্পাদনাও বন্ধ রাখা হয়েছে।

(গ) অত:পর তথ্যের ব্যাপারেও সরাসরি সম্পাদনা না-ক'রে আলোচনা পাতায় বিষয়টি উল্লেখ করা হযেছে। যেমন রাজা ভরত প্রসঙ্গ। কিন্তু "...চন্দ্রবংশ ছাড়া যেহেতু অন্য কোনো বংশে ভরত নামের রাজা ছিলেন না" - এ তথ্য কি ঠিক? এক্ষেত্রে "রামের ভাই ভরত নন, ভিন্ন ভরত" লিখলেও দ্ব্যর্থতার নিরসন হচ্ছে না। কারণ, আরো একজন ভরত রাজা আছেন, যার নাম থেকে "জড়ভরত" শব্দটির উৎপত্তি। এই ভরত ঋষভদেবের পুত্র (ঠিক মনে নেই, চিহ্নিতকরণে ভুল হতে পারে)। তিনি রাজত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন। সুতরাং "চন্দ্রবংশীয় রাজা ভরত" লেখার পরামর্শ দেয়া হয়েছিল। পরামর্শটি অগ্রহ্য করা হয়েছে।

(ঘ) অর্ণব বাবু ইঙ্গিত করেছেন: সম্পাদনার নামে গলদ করা হচ্ছে, বিভ্রান্তিকর সম্পাদনা করা হচ্ছে। উদাহরণ? লেখা ছিল: "ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল রাষ্ট্র। এদেশের জনসংখ্যা আনুমানিক একশো তেরো কোটি।" সম্পাদনার পর দাঁড়ালো: "ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল রাষ্ট্র। ২০০১ সালে অনুষ্ঠিত আদমশুমারীর ভিত্তিতে এদেশের প্রাক্কলিত জনসংখ্যা একশো তেরো কোটি।" - গলদ হলো কি? পাঠক বিভ্রান্ত হবেন এবার? ২০০৯ সালে যে নিবন্ধ লেখা হচ্ছে তাতে ২০০১ সালের আদমশুমারী বা জনগণনার রেফারেন্স দেয়া হয়েছে পাঠকের কৌতূহল আগাম মিটিয়ে রাখতে। স্বীকার্য, "প্রাক্কলিত" শব্দটির জায়গায় "আনুমানিক" শব্দটি বসানো যেত। তাতে উপযুক্ত পরিভাষার ব্যাপারে কম্প্রোমাইজ করা হয়। এই কম্প্রোমাইজের প্রয়োজন অনুভূত হয় নি।

(ঙ) অর্ণব বাবুর এপ্রোচে দৃঢ় "ঔনারশিপ" থাকে ; সেটা আন্তরিক কমিটমেন্টের বাইপ্রডাক্ট। তবে এতে খানিকটা ইন্টিমিডেশানের আবহাওয়ারও জন্ম হয়। তাই তিনি বলার সঙ্গে-সঙ্গে আমি হাত গুটিয়ে নিয়েছি পাছে তিনি বিরক্ত হন। কোথায় যেন তিনি আমাকে "ভারত" নিবন্ধটি ছেড়ে অন্যান্য নিবন্ধে মনোনিবেশ করার সৎ পরামর্শ দিয়েছিলেন ; এখন খুজেঁ পাচ্ছি না। আমি তাঁর পরামর্শ তৎক্ষণাৎ মেনে নিয়েছিলাম। এ কারণে "বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিক্ষেত্রে অতি প্রাচীন কাল থেকেই ভারত তার নিজস্ব সাক্ষর রেখে এসেছে" বাক্যটিতে (দ্র: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুচ্ছেদ) "সাক্ষর" শব্দটি "স্বাক্ষর" দিয়ে প্রতিস্থপানের জরুরী পরামর্শটিও আমি অনুচ্চারিত রেখেছিলাম। আমার বিশ্বাস "সাক্ষরতার হার" এবং "ভারতের সফল মহাকাশ-কর্মসূচির সাক্ষর" এই দুই সাক্ষর/স্বাক্ষরের বানান যে অভিন্ন নয় যে সম্পর্কে তিনি সম্যক অবহিত। সন্দেহ নেই, এটা তাঁর পক্ষে এ ক্লিয়ার কেইস অফ ওভারসাইট।

(চ) অভিধান মিলিয়ে যারা লেখেন তাদের রচনায় জড়তা এসে যায়। লেখার পর অভিধান দেখা শ্রেয়। তাতে প্রাঞ্জলতা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে না। ভারত নিবন্ধটি এ ধরনের ক্ষতির শিকার।- "প্রস্তাবিত নিবন্ধে কোনো লাল লিঙ্ক নেই। তথ্যসূত্রগুলি যাচাই করা হয়েছে। বানান ও পরিভাষা-সংক্রান্ত ভুলগুলি সংশোধন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, যে নিবন্ধ থেকে নিবন্ধটি অনূদিত হয়েছে, সেই মূল ইংরেজি নিবন্ধটি ইংরেজি উইকিপিডিয়াতে নির্বাচিত নিবন্ধ। এটিকে নির্বাচিত নিবন্ধ করার প্রস্তাব রাখছি।" -- এই প্রস্তাবে দ্বিমতের কোন কারণ নেই। তবে প্রদত্ব যুক্তির বিষয়ে কথা আছে এবং তা অর্ণব বাবুর লেখা বলেই। আমার ধারণা তিনি নাগাড়ে লিখে গেলে রচনাটি কেবল প্রাঞ্জলতরই হতো না, ভাষাগত দুর্বলতাগুলো এমনিতেই কেটে যেত। "জনপরিসংখ্যান" অনুচ্ছেদটির সম্পাদনা নিয়েই বিতর্কের সূত্রপাত। লক্ষ্য করা যেতে পারে এই অংশে যে সম্পাদনা তিনি গ্রহণ করেছেন তা মূলত ভাষাগত। এই ধরণের সম্পাদনা "আলাপ পাতায়" আলোচনা সাপেক্ষে করা যায় না। প্রতিটি সম্পাদনার জন্য ব্যাখ্যা দিতে হলে আত্মা কণ্ঠাগত হবে। তা অনাবশ্যকও বটে।

যাই হোক, অধিকতর পরিমার্জনা, সম্পাদনা ও ভাষাগত উন্নয়ন প্রয়োজন থাকলেও আমি হাত লাগাচ্ছি না। পরামর্শও দিচ্ছি না। পরামর্শ দিয়েও কাজ হবে না তার প্রমাণ ওপরে আছে। দ্রষ্টব্য আমার (ক) এবং (খ) চিহ্নিত দুটি পরামর্শ ; যেটি বেলায়েত অনায়াসে ধরতে পারলেও অর্ণব বাবুকে বোঝানো যায়নি। তিনি বয়োজ্যেষ্ঠ, তাঁর চোখে আঙ্গুল দিয়ে আমার যুক্তি প্রতিষ্ঠা করা শোভন মনে হচ্ছে না। তিনি সস্নেহে আহবান (শব্দটি বেলায়েতের) জানালে ভিন্ন কথা। -- Faizul Latif Chowdhury (talk) ০৪:৩৭, ১ জানুয়ারি ২০১০ (UTC)

এই বক্তব্যগুলি ভারত নিবন্ধের আলাপ পাতায় উত্থাপনের প্রস্তাব রাখছি। সেখানে আলোচনা হলেই ভাল হয়। --অর্ণব দত্ত (talk) ০৫:১০, ১ জানুয়ারি ২০১০ (UTC)
ফয়জুল ভাইকে লেখা আমার বার্তার বয়ানটিও এখানে দিয়ে দিলাম
ফয়জুল ভাই, কয়েকটি বিষয় আমিও আপনার সঙ্গে পরিষ্কার করতে আগ্রহী।
  • প্রথমেই বলে রাখা ভাল, আপনি ও বেলায়েতভাই দুজনে এই ধারণ পোষণ করছেন যে আমি আপনাকে ভারত নিবন্ধে সম্পাদনা করতে বারণ করেছি। দুঃখের কথা, আমার বক্তব্যের প্রকৃত অর্থ অনুধাবনে আপনারা দুজনেই অসমর্থ হয়েছেন এবং শেষ পর্যন্ত আমাকে এমন অসম্মানজনক কথাও শুনতে হয়েছে যে আমি উইকিপিডিয়ার নীতিবিরোধী কাজ করেছি (আপনি বলেননি)। যাই হোক, আপনার গলদ কোথায় সেটা আরও স্পষ্ট করে দিই।
  • আপনি লিখছেন - "ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল রাষ্ট্র। ২০০১ সালে অনুষ্ঠিত আদমশুমারীর ভিত্তিতে এদেশের প্রাক্কলিত জনসংখ্যা একশো তেরো কোটি।" গলদ কোথায়? না প্রথম বাক্যে গলদ নেই। এমনকি আদমশুমারি কথাটা অপ্রচলিত হলেও বিভ্রান্তিকর নয়। গলদ "প্রাক্কলিত" শব্দটি নিয়ে। আমি জানি না বাংলাদেশে কী হয়; তবে ভারতে জনগণনা ও প্রাক্কলন এক জিনিস নয়। ভারতে জনগণনা হয় প্রতি ১০ বছর অন্তর; প্রাক্কলন হয় প্রতি বছর। ভারত সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক প্রতি বছর একটি আলাদা জনসংখ্যা সংক্রান্ত প্রাক্কলন তথ্য প্রকাশ করেন। এই কারণে জনগণনার সঙ্গে প্রাক্কলন কথাটি যোগ করলে, স্পষ্টতই, গলদ হয়। আর সঙ্গত কারণেই "আনুমানিক" শব্দটি ব্যবহার করলেও বিতর্ক সৃষ্টি হবে। কারণ এর অর্থ দাঁড়াবে জনগণনার তথ্যকে চ্যালেঞ্জ করা হচ্ছে। যা ভারতে করা হয় না। তাছাড়া বাক্যটি তো এভাবেও লেখা যেত - "২০০১ সালের জনগণনা অনুযায়ী ভারতের জনসংখ্যা..."। যেমন স্কুলে-কলেজে-বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েছি।
  • দ্বিতীয়ত, আপনি কয়েকটি বানান ভুলের প্রসঙ্গ তুলেছেন। বানান ভুল অসাবধানতা বশত যে কারোর হতে পারে। সেটাকে দেখিয়ে দেওয়াই বাঞ্ছনীয়। বানান ভুল সংশোধনটি কোনো গুরুতর ব্যাপার নয়।
  • ভাষার প্রাঞ্জলতারক্ষার বিধানে কী কী করণীয় সে বিষয়ে আপনাকে মতামত জানাতেও বাধা দিচ্ছি না। বরং সস্নেহেই আহ্বান জানাচ্ছি। কিন্তু উপরিউক্ত "গলদ"-এর বিষয়গুলিও একই সঙ্গে মাথায় রাখতে অনুরোধ করছি। প্রাঞ্জলতা আনতে গিয়ে বিভ্রান্তিজনক (ভুল আপনি স্বেচ্ছায় করেননি, সে কথা বুঝতে আমার কোনো অসুবিধা নেই) পরিভাষা ব্যবহার না করাই ভাল। একথা অনুধাবন করবেন, আমি আপনার উপর বিরক্ত নই। আপনাকে ভারত নিবন্ধ থেকে নিরত করার কোনো ইচ্ছাও আমার নেই। আমি কেবলমাত্র বলেছি, তথ্যসংক্রান্ত পরিবর্তন ও পারিভাষিক পরিবর্তনের ভারত সম্পর্কে জেনে নিন। আপনি লক্ষ্য করবেন বা উইকিপিডিয়াতে অনেকেই লক্ষ্য করে থাকবেন, আমি বাংলাদেশ সংক্রান্ত কোনো নিবন্ধে হুট করে হাত দিয়ে বসি না। কারণ আমি জানি, যাঁরা এই নিবন্ধগুলি লিখছেন, তাঁরা সেই দেশের বাসিন্দা ও সেই দেশ সম্পর্কে আমার জ্ঞান তাঁদের তুলনায় অনেক কম। (এবারও ভুল বুঝবেন না, আমি আপনাকে মূর্খ বলছি না; বা আপনাকে ভারত সম্পর্কে নিবন্ধে হাত দিতেও বারণ করছি না। সম্ভবত প্রাক্কলন ও জনগণনার ভিতরকার কথা আপনার জানা ছিল না বলেই আপনি প্রাক্কলন শব্দটি ব্যবহার করেছেন। তাই আগে কিছু লেখা আগে লেখা যায় কিনা একবার আলোচনা করে নিয়ে লিখতে অনুরোধ করছি।)
  • ভরত প্রসঙ্গ: ঋষভনাথের পুত্রের নাম "ভরত" নয়, "জড়ভরত"। হিন্দু পুরাণে, তাঁকে ওই নামেই চিহ্নিত করা হয়েছে। সুতরাং আপনার দ্ব্যর্থতার আশঙ্কা অমূলক। তবে "রাজা ভরত" সংক্রান্ত নিবন্ধ সৃষ্টি করার বিষয়েও সম্মতি দিয়েছি। সুতরাং সমস্যা নেই।

সবশেষে আবারও বলতে চাই, আমি সস্নেহেই আপনাকে আহ্বান জানাচ্ছি। বিরক্ত হয়ে নয়। আপনার উপর বিরক্ত হলে, আপনার কোনো পরামর্শই আমি গ্রহণ করতাম না। এবং আবারও বলছি, আপনার কয়েকটি (মাত্র কয়েকটি) সম্পাদনায় আমি "গলদ" খুঁজে পেয়েছি। যেমন আপনিও আমার লেখায় পেয়েছেন। অতএব ভুল বোঝাবুঝির কোনো অবকাশ নেই। ভুল মানুষমাত্রেই করে। অর্থনীতি বিষয়ে আপনার পরামর্শে আমরা উপকৃত হয়েছি। আমার বিনীত অনুরোধ, আরও কোনো বক্তব্য থাকলে আজকের মধ্যেই জানান। এবং আরও বিনীত অনুরোধ দয়া করে, আমার কোনো বক্তব্যকে ভুল অর্থে গ্রহণ করবেন না। আপনার কোনো পরামর্শ গ্রহণে আমি অপারগ হলে, জানবেন আমার নিশ্চয় কোনো বাধ্যবাধকতা ছিল বলেই আমি অপারগ হয়েছি, আপনার প্রতি বিরক্তিবশত হইনি। আমি যথাসম্ভব চেষ্টা করব, সেসব ক্ষেত্রে যুক্তিগুলি তুলে ধরার। অনেক ধন্যবাদ। নতুন বছরের শুভেচ্ছা নেবেন। --অর্ণব দত্ত (talk) ০৬:৩২, ১ জানুয়ারি ২০১০ (UTC)

আমার মনে হয় ভারতের ফিচারড স্ট্যাটাসের ক্ষেত্রে সময়ের একটা সীমা দেওয়ায় একটা ভুলবোঝাবুঝি হয়েছে। হ্যাঁ, সময় দেওয়া হয়েছে, কিন্তু তাঁর মানে এই নয় যে মানের ব্যাপারে ছাড় দেওয়া হবে বা চাওয়া হয়েছে। নির্বাচিত নিবন্ধের মান তা মান অনুযায়ী-ই হওয়া উচিত। ফয়জুল ভাই প্রথম যে অভিযোগটি দিয়েছেন, অর্থাৎ ভাষার প্রাঞ্চলতা তা একটা গুরুতর অভিযোগ, ফিচার্ড আর্টিকলের ভাষা অবশ্যই প্রাঞ্জল হতে হবে। ফয়জুলভাইকে অনুরোধ করবো তাঁর গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ অব্যাহত রাখতে। প্রাঞ্জলতার অভাবগুলো চিহ্নিত করে দিতে। পূর্বের মতো তাঁর পরামর্শ অবশ্যই আমলে নেওয়া হবে। প্রশ্নবিদ্ধ করার মাধ্যমেই সঠিকটা বেরিয়ে আসবে। — তানভির আলাপ অবদান ০৯:৩০, ১ জানুয়ারি ২০১০ (UTC)

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

মূল নিবন্ধটিতে কোনো লাল লিংক নেই, সকল তথ্যসূত্র যাচাইকৃত, আমার জানামতে বানান ভুলও নেই, এবং ইতিমধ্যেই এটি একটি ভালো নিবন্ধ। উল্লেখ্য যে নিবন্ধ থেকে এটি অনুবাদকৃত হয়েছে, অর্থাৎ ইংরেজি উইকিপিডিয়াতেও এটি একটি নির্বাচিত নিবন্ধ। তাই অনুবাদগুলো দেখা যেতে পারে। এটিকে নির্বাচিত নিবন্ধ করার প্রস্তাব করছি। প্রস্তাবক: — তানভির আলাপ অবদান ০২:৫৩, ২৩ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)

সমর্থন। (নিবন্ধটি নিজগুণে সুন্দর হয়েছে) --অর্ণব দত্ত (talk) ০৭:৫০, ২৯ ডিসেম্বর ২০০৯ (UTC)

উত্তীর্ণ প্রস্তাবনাসমূহ

অনুত্তীর্ণ প্রস্তাবনাসমূহ